দেশ

চসিক নির্বাচন : কেন্দ্রে কেন্দ্রে যাচ্ছে সরঞ্জামাদি

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি ২৬ জানুয়ারি, ২০২১, ১৬:২৬:১১

  • ছবি : ইন্টারনেট।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে সবমিলিয়ে চারটি ভেন্যু থেকে নির্বাচনের সব ধরনের সরঞ্জামাদি ভোটকেন্দ্রে পাঠানো হচ্ছে। বেশিরভাগ ভোটকেন্দ্রে এরই মধ্যে সরঞ্জামাদি পৌঁছে গেছে। প্রিজাইডিং অফিসাররা সরঞ্জামগুলো বুঝে নিচ্ছেন। ভোটকেন্দ্রগুলোতে এরই মধ্যে প্রস্তুতি শুরু করেছেন তাঁরা।

অপরদিকে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার লক্ষ্যে নগরীর মাঠে থাকছে র্যা ব, পুলিশ, আনসার ও বিজিবির ১৫ হাজার সদস্য।

সার্বিক প্রস্তুতি মোটামুটি সম্পন্ন হয়েছে। রিটার্নিং কর্মকর্তার প্রত্যাশা, আগামীকাল সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি থাকবে। মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) সকালে চসিকের রিটার্নিং কর্মকর্তা মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান জানান, আগামীকাল বুধবার চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন। এদিন সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোট চলবে। এ কারণে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার লক্ষ্যে নগরীর মাঠে থাকছে র্যা ব, পুলিশ, আনসার ও বিজিবির ১৫ হাজার সদস্য।

তিনি আরো জানান, আগামীকাল ভোটকেন্দ্রে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা থাকবে। ভোটাররা নির্ভয়ে ভোট দিতে পারবেন। এর আগে সোমবার সন্ধ্যা থেকেই নগরীর বিভিন্ন স্থানে খোলা ট্রাকে করে সশস্ত্র বিজিবি সদস্যরা টহল দিয়েছেন।

মূলত আওয়ামী লীগ-সমর্থিত কাউন্সিলর ও বিদ্রোহী প্রার্থীদের দ্বন্দ্বে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে নির্বাচনী মাঠ। ভোটের দিন কেন্দ্রের সুষ্ঠু পরিবেশ নিয়ে শঙ্কায় আছেন ভোটার ও প্রার্থীরা বলে জানা গেছে।

গতকাল বিকালে বিজিবি সদস্যরা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় এবং জেলা প্রশাসনে রিপোর্ট করে টহল দিতে শুরু করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা তাদের তত্ত্বাবধান করবেন। তারা নির্বাচনের পরদিন পর্যন্ত বিজিবি নগরীতে দায়িত্ব পালন করবেন।

এদিকে ৯০০০ পুলিশ সদস্য মাঠে নামছে বলে জানান সিএমপি কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর। তিনি বলেন, সুষ্ঠভাবে ভোট গ্রহণের লক্ষে চসিক নির্বাচনের আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে এবার ৯০০০ হাজার পুলিশ সদস্য মোতায়েন থাকছে।

এদিকে শেষদিনে জমজমাট প্রচারণা চালিয়েছেন নির্বাচনের দুই হেভিওয়েট প্রার্থী মো. রেজাউল করিম চৌধুরী ও ডা. শাহাদাত হোসেন।

এদিকে, ৪১টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৭৩৫টি ভোটকেন্দ্রে পুলিশ, আনসার, এপিবিএনের সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন। এর মধ্যে তিনটি ওয়ার্ড মিলে একটি করে স্ট্রাইকিং ফোর্স থাকছে। এ ছাড়া একটি করে রিজার্ভ স্ট্রাইকিং ফোর্সও থাকবে। দুটি ওয়ার্ডে এক প্লাটুনে ১০ জন করে বিজিবি সদস্য মোতায়েন থাকছে। প্রতি প্লাটুনে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন। এ ছাড়া নৌপুলিশও দায়িত্বে থাকবে।

উল্লেখ্য, বুধবার (২৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। চসিক নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বী ৭ জন। কাউন্সিলর প্রার্থী ২২৫ জন। এবার ভোটার ১৯ লাখ ৩৮ হাজার ৭০৬ জন।

নিউজজি/ এসআই

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers