শিল্প-সংস্কৃতি

শওকত আকবরের চলে যাওয়ার দিন আজ

নিউজজি প্রতিবেদক ২৩ জুন , ২০২২, ১০:৫১:৫৮

  • শওকত আকবরের চলে যাওয়ার দিন আজ

তিন দশকের বেশি সময় ধরে তিনি কাজ করেছিলেন। অভিনয় করেছেন বাংলা ও উর্দু সিনেমায়। সাবলীল অভিনয়ে মুগ্ধ করেছেন দর্শকদের। তবে তার একটি বিশেষ পরিচয় রয়েছে সিনেমায়। তিনি সিনেমার পর্দার রাজা। হ্যাঁ, তার অভিনীত চরিত্রগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হচ্ছে রাজার চরিত্র। অনেকগুলো সিনেমায় তিনি এই চরিত্র ফুটিয়ে তুলেছেন দারুণভাবে।

বলছি বিখ্যাত অভিনেতা শওকত আকবরের কথা। তার সঙ্গে এ প্রজন্মের তেমন পরিচয় না থাকলেও সিনেমার ইতিহাসে তিনি নক্ষত্রের মতো উজ্জ্বল। বরেণ্য এই অভিনেতার চলে যাওয়ার দিন আজ।

২০০০ সালের ২৩ জুন লন্ডনে মৃত্যুবরণ করেন শওকত আকবর। সেখানকার মুসলিম কবরস্থানেই শায়িত রয়েছেন সিনেমার এই রাজা।

শওকত আকবরের জন্ম ৭ মার্চ, ১৯৩৭ সালে পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলায়। তার শৈশব কেটেছে কলকাতার হুগলীতে। হুগলি স্কুলে তার পড়াশোনা। সেই স্কুল জীবন থেকেই সিনেমা দেখার অভ্যেস। আর সিনেমা দেখার আগ্রহ দেখে সিনেমায় অভিনয়ের আগ্রহের জন্ম।

স্কুল জীবনে শওকত আকবর স্টেজে অভিনয় শুরু করেন। প্রথম ‘দেবদাস’ নাটকে অভিনয় করেন। তখন তার বয়স ছিল প্রায় ১৫ বছর। সে সময় শওকত আকবর হুগলিতে ছিলেন। ১৯৫০ সালে বর্ধমান জেলায় হিন্দু-মুসলমান দাঙ্গা শুরু হলে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তৎকালীন পূর্ববাংলার ঢাকায় চলে আসেন।

ঢাকায় তিনি চিকিৎসা শাস্ত্রে পড়াশোনা সম্পন্ন করেন। কিন্তু পেশা হিসেবে বেছে নেন অভিনয়কে। ১৯৬৪ সালে ‘এইতো জীবন’ সিনেমার মাধ্যমে রূপালি জগতে আত্মপ্রকাশ করেন শওকত আকবর। তিনি মূলত নায়ক ও সহ অভিনেতা চরিত্রে অভিনয় করতেন। এর মধ্যে সহ অভিনেতা হিসেবেই তিনি বেশি সফল হয়েছেন।

বিশেষ করে ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ সিনেমায় তিনি রাজার ভূমিকায় অভিনয় করে গোটা দেশের মানুষের মন জয় করেছেন। দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে সফল এই সিনেমা তাকে নিয়ে গেছে চিরস্মরণীয় পর্যায়ে।

শওকত আকবর অভিনীত অন্যান্য বাংলা সিনেমাগুলোর মধ্যে ‘হাঙর নদী গ্রেনেড’, ‘শঙ্খমালা’, ‘ছুটির ঘণ্টা’, ‘অবুঝ মন’, ‘এইতো জীবন’, ‘অভিশাপ’, ‘মিলন’, ‘জংলী ফুল’, ‘মোমের আলো’, ‘আগুন নিয়ে খেলা’, ‘জীবন থেকে নেয়া’, ‘বড় বউ’, ‘টাকা আনা পাই’, ‘নতুন সুর’, ‘ফকির মজনু শাহ্‌’ ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

এছাড়াও তিনি ‘দিল এক মিশা’, ‘পূনম কি রাত’, ‘পয়েসে’, ‘চলো মান গায়ে’, ‘বেরহম’, ‘হামদাম’সহ বহু উর্দু সিনেমায় অভিনয় করেছেন।

বর্ণিল ক্যারিয়ারে শওকত আকবরের অসামান্য ভূমিকা সমৃদ্ধ করেছে বাংলা চলচ্চিত্রকে। এজন্য তাকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে আজীবন সম্মাননা দেওয়া হয়।

নিউজজি/রুআ

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ