ফিচার
  >
প্রাণী ও পরিবেশ

মায়াবী পাখি সুইচোরা

নিউজজি প্রতিবেদক ৩ মার্চ , ২০১৯, ১৩:৫৯:২৩

  • ছবি: রাকিব হাসান

ছোট্ট একটা পাখি। মায়াবী আর সুন্দর দেখতে। সবুজাভ শরীরটাকে দিব্যি বাতাসে ভাসিয়ে দিয়ে উড়ে বেড়ায়। ছোট এই পাখিটাকে দেখলেই বুঝবেন যে এইটা - সুইচোরা। নামটা শুনে অবাক লাগতেই পারে। নামের সাথে পাখিটার যথেষ্ট মিল আছে। লেজের আগায় সুইয়ের মতো সরু পালক থাকায় তার নামটা এমন। 

সাব-সাহারান আফ্রিকা থেকে সেনেগাল এবং গাম্বিয়া থেকে ইথিওপিয়া পর্যন্ত এই পাখি  প্রচুর দেখা যায়। আফ্রিকার নীল উপত্যাকাতেও এই পাখি অল্পবিস্তর চোখে পড়ে। এশিয়ার আরব উপদ্বীপ, ভারত, বাংলাদেশ থেকে ভিয়েৎনাম পর্যন্ত এই পাখি দেখা যায়। এই সব অঞ্চলে নানা প্রজাতির সুইচোরা দেখা যায়। বাংলাদেশে এর বেশ কয়েকটি প্রজাতি পাওয়া যায়।  বাংলাদেশে নদীর তীরবর্তী বনাঞ্চলে এদের বেশি দেখা যায়। এরা টিউ টিউ শব্দ করে থাকে।

এদের গায়ের রঙ উজ্জ্বল সবুজ হয়। মাথার রঙ তামাটে। গলায় সাদা রঙের এবং এর নিচের দিকে কালো রেখা আছে। ঠোঁটের রঙ কালো। ঠোঁট ধারালো, অগ্রভাগ সরু ও বাঁকানো। ঠোঁটের গোড়া থেকে চোখ স্পর্শ করে চওড়া কালো রেখা রয়েছে। দেখতে অনেকটা কাজল টানা চোখের মতো মনে হয়। এরা পাহাড় বা নদীর খাঁড়া পাড়ে গর্ত করে ডিম পাড়ে। বাসা তৈরি করতে প্রায় ৪ থেকে ৬ দিন সময় লাগে। বাসা তৈরির সময় এরা ঠোঁট এবং পা ক্রমাগত ব্যবহার করে। 

সুইচোরা পাখিটি প্রায় ৫ সেন্টিমিটার দীর্ঘ লেজসহ এদের দৈর্ঘ্যে প্রায় ১৬-১৮ সেন্টিমিটার হয়।  স্ত্রী-পুরুষ পাখির প্রভেদ বুঝা যায় না। ভারী মিষ্টি একটা পাখি সুইচোরা। উজ্জ্বল চোখ। বাঁকানো লম্বা ঠোঁট। ডানা হয় লম্বাটে, পা দুটো তুলনামূলক খাটো, লম্বা লেজ। পৃথিবীতে সব মিলিয়ে ২৪ প্রজাতির সুইচোরা আছে। প্রজাতিভেদে তাদের শরীরের মাপ ৬ থেকে ১৪ ইঞ্চি। পুরুষ ও মেয়ে পাখির মধ্যে তেমন কোনো পার্থক্য নেই। আর সব প্রজাতির সুইচোরারই আচার-ব্যবহার, খাদ্যাভ্যাস, বসবাসের ধরন, ওড়ার ধরন প্রায় একই রকম। প্রজাতিভেদে রঙে ভিন্নতা থাকলেও সবার শরীরেই সবুজ রঙের আধিক্য লক্ষণীয়।

মজার বিষয় হলো সুইচোরাকে পুরোপুরি সামাজিক পাখি বলা যায়। মানুষের মতো ওরা একসঙ্গে থাকতে ভালোবাসে। যখন বাসা বানায় সবাই একসসেঙ্গই কাছাকাছি বাসা বানিয়ে থাকতে তারা পছন্দ করে। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই একসাথে ৬টা করে ডিম পাড়ে সুইচোরা। তবে কখনো কখনো এর কমবেশিও হয়। পুরুষ ও মেয়ে পাখি দুজনে মিলেই ডিম তা দেয় পালা করে। ডিম ফুটতে সময় লাগে ২১-২৭ দিন।  

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers