ফিচার
  >
ইতিহাস ও ঐতিহ্য

কবিগুরুর শ্বশুরবাড়ি

নিউজজি ডেস্ক ৮ মে , ২০২১, ১১:২১:২৩

  • সংগৃহীত

ঢাকা: ১২৯০ বঙ্গাব্দের ২৪ অগ্রহায়ণ বেণীমাধব রায়চৌধুরী ও দাক্ষায়ণী দেবীর একমাত্র কন্যা ভবতারিণী ওরফে ‘ফুলি’র সঙ্গে রবীন্দ্রনাথের বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। বিয়ের পর ঠাকুরবাড়ির প্রথানুযায়ী ভবতারিণীর নাম হয় ‘মৃণালিনী’। রবীন্দ্রনাথের পূর্বপুরুষ প্রিন্স দ্বারকানাথ ঠাকুরের স্ত্রী দিগম্বরীদেবী দক্ষিণডিহির পিরালী বংশের কন্যা। রবীন্দ্রনাথের পিতা মহর্ষি দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুরও বিয়ে করেন দক্ষিণডিহির রামনারায়ণ রায়চৌধুরীর কন্যা সারদাদেবীকে।

রবীন্দ্রনাথের আদিপুরুষ জগন্নাথ কুশারী ষোলো শতকের গোড়ার দিকে খুলনার পিঠাভোগ ছেড়ে এসে দক্ষিণডিহির জমিদার দক্ষিণানাথ রায় চৌধুরীর পুত্র শুকদেব রায়চৌধুরীর কন্যা সুন্দরীদেবীকে বিয়ে করে এই দক্ষিণডিহিতে বসতি স্থাপন করেন। এবং তারা বংশপরম্পরায় প্রায় দুই শত বছর এই দক্ষিণডিহির স্থায়ী বাসিন্দা ছিলেন। লেখাবাহুল্য, এই দক্ষিণানাথের নামানুসারে এলাকাটির নাম দক্ষিণডিহি। 

ঊনত্রিশ বছর বয়সে ১৯০২ খ্রিস্টাব্দের ২৩ নভেম্বর মৃণালিনীদেবীর মৃত্যু হয়। রবীন্দ্রনাথের শ্বশুর বেণীমাধব রায়চৌধুরী দেশবিভাগের বহু আগে থেকেই কলকাতায় বসবাস শুরু করেন। বেণীমাধবের একমাত্র পুত্র নগেন্দ্রনাথ ওরফে ফেলুবাবু জমিদারি দেখার জন্য মাঝেমধ্যে দক্ষিণডিহিতে আসতেন। ফেলুবাবুর ছেলেরা কেউ তখন দক্ষিণডিহি, কেউ কলকাতার বাসিন্দা। ১৯৪০ খ্রিস্টাব্দে শেষবারের মতো পরিবারের সবাই দেশত্যাগ করেন। দেশভাগের পর বাড়িসহ জমাজমি অরক্ষিত হয়ে পড়ে। এই সুযোগে রুস্তম ও হারেজ বিশ্বাসগং স্থানীয় কিছু মতলববাজ প্রভাবশালীদের সহযোগিতায় এ বাড়িটি অবৈধভাবে দখল করে রাখে। ইতিহাসখ্যাত বেহাত হয়ে যাওয়া এ বাড়িটি প্রায় ৫০ বছর পর ১৪ নভেম্বর ১৯৯৫ খ্রিস্টাব্দ জনদাবির ভিত্তিতে উদ্ধার করা হয়।

রবীন্দ্র স্মৃতিধন্য বেণীমাধব রায়চৌধুরীর বাড়িসহ মোট ৭ একর ৮ শতক জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত হয়েছে দক্ষিণডিহি রবীন্দ্র কমপ্লেক্স। গাছগাছালির ঘেরাটোপে বন্দী পুরনো দোতলা বাড়ি। বাড়ির থামগুলো বেশ চৌকস। প্রাচ্যরীতির কারুকাজ। উপযুক্ত রক্ষণাবেক্ষণের অভাব থাকলেও কবির জন্মবার্ষিকী উদ্যাপন উপলক্ষে সংস্কার কাজ অনেক দূর এগিয়েছে। বাড়ির দুই পাশে স্থাপিত হয়েছে রবীন্দ্রনাথ ও মৃণালিনীদেবীর আবক্ষ মূর্তি। 

১৯৯৯ সালের ১৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দক্ষিণডিহি রবীন্দ্র কমপ্লেক্স গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বীকৃতি অর্জন করে। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রকাশিত বিভিন্ন পোস্টার, ব্যানার ফেস্টুন, স্মারক ও প্রচারপত্রে দক্ষিণডিহির নাম সংযুক্ত হয়। স্থানীয় সাংবাদিক, সংস্কৃতিসেবী ও সুশীল মানুষের সহযোগিতায় একটি সুস্থ সংস্কৃতিচর্চা কেন্দ্র হিসেবে পরিকল্পনা মাফিক ধীরে ধীরে গড়ে উঠছে দক্ষিণডিহি রবীন্দ্র কমপ্লেক্স।

দক্ষিণডিহি রবীন্দ্র কমপ্লেক্স বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতি বিজড়িত একটি স্থান, যা খুলনা শহরের দক্ষিণডিহিতে অবস্থিত। খুলনা শহর থেকে ১৯ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ফুলতলা উপজেলার তিন কিলোমিটার উত্তর পশ্চিমে দক্ষিণডিহি অবস্থিত। তথ্য ও ছবি – ইন্টারনেট। 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers