অন্যান্য
  >
বিশ্বকাপ

২৭ বছর পর ইংল্যান্ড ফাইনালে

শামীম চৌধুরী চৌধুরী, ইংল্যান্ড থেকে ১১ জুলাই , ২০১৯, ২২:৪৪:৩৫

  • ইংল্যান্ডকে বিশ্বকাপে ফাইনালে উঠানোর আনন্দে রুট। অন্য প্রান্তে থাকা মরগানও যোগে দেন তাতে ছবি-ক্রিকইনফো

এজবাস্টনে প্রথম ইনিংসে পেসাররা কি ভয়াবহ সুইংই না পেয়েছে-দ্বিতীয় ইনিংসে সেই পিচের বৈশিষ্ঠ্যই গেছে বদলে।  আরচ্যার-ওকস তোপে শুরুতেই ব্যাকফুটে অস্ট্রেলিয়া। ব্যাটিং পাওয়ার প্লে তে ২৭ রান উঠতে ফিঞ্চ(০),ওয়ার্নার (৯),হ্যান্ডসকম (৪) ফিরেছেন ড্রেসিংরুমে ! 

অথচ ইংল্যান্ড ওপেনিং পার্টনারশিপ পাওয়ার প্লে তে অজি পেসাদের দম্ভে  দিয়েছেন আঘাত ! পাওয়ার প্লে'তে উইকেটহীন ৫০ রানেই ম্যাচের ব্যবধান তৈরি হয়েছে।বিশ্বকাপ ইতিহাসে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে রেকর্ডটা মোটেও ভাল নয়।  আগের ৮ দেখায় ২ বার মাত্র জয়ের দেখা পেয়েছে ইংলিশরা।

চলমান আসরে প্রথম লড়াইয়ে লর্ডসে ৬৪ রানে হারের ক্ষতটা এখনো শুকায়নি ইংল্যান্ডের। সেই বদলাটা নিয়েছে ইংল্যান্ড বৃহস্পতিবার।আরচ্যার (২/৩২),ওকস (৩/২০),আদিল রশিদের (৩/১৭) বোলিংয়ে ২২৩ রানে অস্ট্রেলিয়াকে গুড়িয়ে দিয়ে সহজ জয়ের পথ করেছে প্রশস্ত। 

১৯৭৯,১৯৮৭,   ১৯৯২, এই তিন আসরের ফাইনালিস্ট ইংল্যান্ড আবার পেয়েছে ফাইনালের নাগাল।  বেহারন্ড্রফকে মিড অনে বাউন্ডারিতে ১০৭ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটের বিশাল জয়ে ২৭ বছর পর বিশ্বকাপের ফাইনালের টিকিট পেয়েছে ইংল্যান্ড। ফাইনালে ইংল্যান্ডের প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। লর্ডসে ১৪ জুলাই যে-ই জিতুক, নতুন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন খুঁজে পাবে বিশ্ব।

 ২২৪-এর টার্গেটে শুরুতেই নিজেদের ব্যাটিং সামর্থের জানান দিয়েছে ইংল্যান্ড। ইনিংসের ৬ষ্ঠ ওভারে মিচেল স্টার্ককে ১ম বলে চার এবং ৫ম বলে ছক্কায় জানিয়ে দিয়েছিলেন দিনটি তার। ১১তম ওভারে ন্যাথান লায়নকে স্ট্রেইট ছক্কায় মাতিয়েছেন দর্শক, ৫ম বলে রিভার্স সুইপে মেরেছেন বাউন্ডারি। স্মিথকে পাড়া মহল্লা মানে এনেছেন নামিয়ে, তার এক ওভারে পর পর ৩ বলে তিন ছক্কায় সহজ জয়ের রাস্তাটা দেখিয়েছেন জেসন রয়। ৫০ বলে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১৮তম হাফ সেঞ্চুরি উদযাপনের দিনে ১০ম সেঞ্চুরিটাও পেতে পারতেন। বেয়ারস্ট রিভিউ নষ্ঠ করায় ক্ষতিটা হয়েছে জেসন রয়-এর। কামিন্সের লেগ স্ট্যাম্পের বাইরে শর্ট পিচ ডেলিভারি হুক করতে চেয়েছিলেন ঠিকই, ব্যাটের স্পর্শ না পেয়েও আম্পায়ার ধর্মসেনার রায় কট বিহাইন্ড ( ৬৫ বলে ৯ চার,৫ ছক্কায় ৮৫)। তর্ক করেও হয়নি লাভ, টিভি আম্পায়ারের সাহায্য নেননি ২ ফিল্ড আম্পয়ার।

তবে বেয়ারস্ট্র'র সাথ ১২৪ রানের ওপেনিং পার্টনারশিপে নেতৃত্ব দিয়ে ইংল্যান্ড এর নতুন সূর্যোদয়ের গল্পটা কিন্তু লিখেছেন জেসন রয়। বাকি দায়িত্বটা পালন করেছেন অবিচ্ছিন্ন তৃতীয় জুটি ৭৯ রান যোগ করে ( মরগান ৪৫ নট আউট, রুট ৪৯ নট আউট)। 

টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়াই কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের। স্কোরশিটে ১৪ উঠতে ৩ টপ অর্ডার হারিয়ে সম্মানজনক টোটালে লড়েছেন স্মিথ। চতুর্থ উইকেট জুটিতে স্মিথ-ক্যারের ১০৩, ৬ষ্ঠ উইকেট জুটিতে ৪৯,৮ম উইকেট জুটির ৫০-এ এই অজি টপ অর্ডার দিয়েছেন নেতৃত্ব। তবে বিশ্বকাপের চলমান আসরে ১ম সেঞ্চুরিটা মিস করেছেন স্মিথ নিজের ভুলে। ওকসের বলে শর্ট লেগে ফিল্ডারের হাতে বল দেখেও দিয়েছিলেন দৌড়। বাটলারের ডাইরেক্ট থ্রোতে রান আউটে কাঁটা পড়েছেন স্মিথ (১১৯ বলে ৬ চার এ ৮৫)। শুরুতে আতঙ্ক ছড়িয়েছেন ইংলিশ পেস বোলার ওকস ( ৬-০-১৬-২)। ২ ওভারের শেষ স্পেলটাও প্রশংসিত (২-০-৪-১)। স্লগে অস্ট্রেলিয়াকে মাথা উঁচু করতে দেননি এই পেস বোলার। শেষ ৬০ বলে ৪৮'র বেশি যোগ করতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া।  ইনিংসের মাঝপথে লেগ স্পিনার আদিল রশিদ দিয়েছেন ধাক্কা (৩/৫৪)। তাতেই বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া থেমেছে ২২৩/১০ এ।  ৭ বার বিশ্বকাপের ফাইনালিস্ট অস্ট্রেলিয়াকে এবার থামতে হলো সেমিফাইনালে। 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers