খেলা

নতুন জার্সিতে বিবর্ণ ভারত

শামীম চৌধুরী নভেম্বর ২৭, ২০২০, ১৮:৪২:১৫

  • ধাওয়ানডে ফিরিয়ে দেয়ায় জাম্পাকাকে ঘিরে উৎসব। ছবি-ক্রিকইনফো

অস্ট্রেলিয়া : ৩৭৪/৬(৫০.০ ওভারে)

ভারত : ৩০৮/৮(৫০.০ ওভারে

ফল : অস্ট্রেলিয়া ৬৬ রানে জয়ী।

১৯৯২ বিশ্বকাপের জার্সিতে ফিরেছে ভারত। পরিচিত জার্সি ছেড়ে ২৮ বছর আগের জার্সিতে ফিরে সুখবর দিতে পারেনি ভারত।

বোলারদের বেহিসাবি বোলিংয়ে অস্ট্রেলিয়ার রান পাহাড়ে চাপা (৩৭৪/৬) পড়ে জয়ের জন্য এই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে চেজিংয়ে রেকর্ড করতে হতো। কিন্তু তা পারেনি। সিডনিতে অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৬৬ রানে হেরে ওয়ানডে সিরিজ শুরু করেছে ভারত। 

ফ্রাঞ্চাইজি জার্সি ছেড়ে যখন গায়ে উঠবে অস্ট্রেলিয়ার জার্সি,তখন অন্যরকম হয়ে উঠবে অজি ক্রিকেটাররা। আইপিএল চলাকালে এটাই মনে করিয়ে দিয়েছিলেন ম্যাক্সওয়েল।আইপিএলে প্রত্যাশিত রান না পেয়ে স্মিথ,ফিঞ্চরাও হোম সিরিজকে নিয়েছিলেন সিরিয়াসলি।

তারই প্রতিফলন ঘটেছে করোনাকালীন সিরিজের প্রথম ম্যাচে। সিডনীতে ফিঞ্চ (১১৪),স্মিথের (১০৫) সেঞ্চুরিতে ভারতের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ১৪১টি ওয়ানডে লড়াইয়ে সর্বোচ্চ ৩৭৪/৬ স্কোর করেছে অস্ট্রলিয়া।ভারতের বিপক্ষে যে কোন প্রতিপক্ষের এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ স্কোর। 

শ্লগের ৬০ বলে ভারত বোলারদের এলোমেলো করে দিয়েছে এদিন স্মিথ-ম্যাক্সওয়েল। এই ৬০ বলে অস্ট্রেলিয়া যোগ করেছে ১১০ রান !

টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে সেই সিদ্ধান্তকে যথার্থ প্রমানের দায়িত্বটা নিয়েছিলেন অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। ওয়ার্নারকে নিয়ে ওপেনিং পার্টনারশিপে ১৫৬ রানে বড় স্কোরের ভিত্তিটা পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। রিভিউ আপীলে ওয়ার্নার কট বিহাইন্ডে ফিরেছেন ৬৯ রানে। দ্বিতীয় জুটির ১০৮,তৃতীয় জুটির ৫৭ রানে টি-২০ আমেজে রান করেছে অস্ট্রেলিয়া। ওয়ানডেতে ৫ হাজারী ক্লাবের সদস্যপদ থেকে ১৭ রান দূরে থাকা ফিঞ্চ এদিন এই সদস্যপদ পেয়েছেন ১৩০তম ম্যাচে। মাইলস্টোন ম্যাচে উদযাপন করেছেন ১৭তম সেঞ্চুরি।

বুমরাহ'র বলে আপার কাট করতে যেয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়েছেন ১১৪ রানের মাথায় (১২৪ বলে ৯ চার,২ ছক্কা)। স্মিথ উইকেটে এসেই টি-২০ মনে করে ব্যাটিং করেছেন। ৩৬ বলে হাফ সেঞ্চুরি করে ৬২ বলে নিজের দ্রুততম সেঞ্চুরি উদযাপন করেছেন স্মিথ। সামীর বলে বোল্ড আউটে ফিরে যাওয়ার আগে ১৫৯.০৯ স্ট্রাইক রেটে করেছেন ১০৫ রান। ম্যাক্সওয়েল ব্যাটে উঠিয়েছিলেন আরো বেশি ঝড়। ১৯ বলে ৪৫ রানের ইনিংসটি তার থেমেছে সামীর বলে লং অনে ক্যাচ দিয়ে।

সিডনীতে এদিন ভারত বোলারদের মধ্যে সামী ছাড়া (৩/৫৯) অন্যরা পাল্লা দিয়ে বেহিসাবি বোলিং করেছে। লেগ স্পিনার চাহালকে পাড়া-মহল্লা মানে নামিয়ে এনেছে এদিন অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানরা। ৮৯ রান খরচায় তার শিকার ১টি। খেয়েছেন ৫টি চারের পাশে ৫টি ছক্কা। সাইনির খরচা সেখানে ৮৩, বুমরাহ  ও নিজের সুনাম এদিন দিয়েছেন বিসর্জন। তার খরচা ৭৩।

চেজ করে জিততে হলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতকে করতে হবে রেকর্ড।কারণ,এর আগে চেজ করে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৩৬২/১ স্কোর আছে ভারতের। ২০১৩ সালে জয়পুরের সেই অতীত থেকে টনিক নিতে পারেনি ভারত। ব্যাটিং পাওয়ার প্লে-এর প্রথম ১০ ওভারে ৮০ রানে লক্ষ্যটা কঠিন মনে হয়নি। হাফ ফিট হারদিক পান্ডিয়ার ৭৬ বলে ৭ চার,চার ছক্কায় ৯০ এবং ধাওয়ানের ৮৬ বলে ৭৪ রান,৫ম জুটিতে তাদের ১২৭ রানে কক্ষপথেই ছিল ভারত। তবে লেগ স্পিনার জাম্পার বলে কভারে ধাওয়ান এবং লং অনে হারদিক পান্ডিয়ার ক্যাচে শেষ হয়েছে ভারতের আশা ভরসা। ব্যাটিং ফ্রেন্ডলি পিচে শুরুটা করেছিলেন অজি পেসার হেজেলউড (৩/৫৫), শেষটা করেছেন লেগ স্পিনার জাম্পা (৪/৫৪)।তাতেই ভারত থেমেছে ৩০৮/৮এ। 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers