খেলা

বার্সেলোনার অনুরোধে অবশেষে রাজি মেসিরা

ক্রীড়া ডেস্ক নভেম্বর ২৮, ২০২০, ১৬:৪০:২৪

  • ছবি: ইন্টারনেট

বেশ আগেই খেলোয়াড়দের বেতন কমানোর প্রস্তাব দিয়েছিল বার্সেলোনা। কিন্তু কোনভাবেই রাজি হচ্ছিলেন না লিওনেল মেসিরা। যে কারণে দুই পক্ষের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি হচ্ছিলো। যার প্রভাব পড়েছে মাঠের ফুটবলেও। ব্যাপারটি অবশেষে বুঝেছেন কাতালান খেলোয়াড়রা। আর তাই এবার ন্যু-ক্যাম্পের ক্লাবটির প্রস্তাব মেনে নিয়েছেন তারা। এজন্য মেসিদের প্রায় ১২ কোটি ২০ লাখ ইউরো বেতন ছাড় দিতে হচ্ছে। আর তাতে হাঁপ ছেড়ে বেঁচেছেন বার্সার অন্তর্বর্তীকালীন বোর্ডের কর্তারা। 

আগামী তিন বছর ধরে মেসিদের প্রায় ১২ কোটি ২০ লাখ ইউরো বেতন কাটা হবে। এ নিয়ে আনুষ্ঠানিক বিবৃতিও দিয়েছে বার্সেলোনা। নিজেদের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে বার্সেলোনা জানিয়েছে, ‘আজ বার্সা বোর্ড ও খেলোয়াড়েরা বেতন কমানোসংক্রান্ত বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেছে। এই মৌসুম থেকে মোট তিন মৌসুমে ১২২ মিলিয়ন (১২ কোটি ২০ লাখ) ইউরো বেতন কমানোর ব্যাপারে রাজি হয়েছেন খেলোয়াড়েরা, এই সময়ে বেতনাদির সম্ভাব্য খরচ ধরা হয়েছে ৫ কোটি ইউরো। এখন শুধু আনুষ্ঠানিক অনুমোদন বাকি। আনুষ্ঠানিক অনুমোদন হয়ে গেলেই এই সিদ্ধান্তটা ক্লাবের ইতিহাসে এক অনন্য মাইলফলক হয়ে থাকবে। উভয় পক্ষই বুঝেছে, এই ঐকমত্যে পৌঁছাতে কত পরিশ্রম হয়েছে সবার, তাই উভয় পক্ষের উচিত একে অন্যকে অভিনন্দন জানানো।’

করোনার কারণে বিশ্বের প্রায় সব ক্লাবই পড়েছে আর্থিক সমস্যায়। ব্যাপারটি বুঝতে পেরেছে লা লিগা কতৃপক্ষও। তাই বেতন খাতে কোন ক্লাব কত বাজেট রাখতে পারবে, সেটা জানিয়ে দিয়েছিল লা লিগা। জানা যায়, ২০২০-২১ মৌসুমে বেতনের জন্য বার্সেলোনা সর্বোচ্চ ৩৮ কোটি ২৭ লাখ ইউরো খরচ করতে পারবে।  অর্থাৎ আগের মৌসুমের প্রায় ৪৩ শতাংশ কম। 

বেতন কমানোর ব্যাপারে কিছুদিন আগেও রাজি ছিলেন না মেসিরা। কিন্তু  জোসেফ মারিয়া বার্তেমিউ কদিন আগে সভাপতির পদ থেকে সরে  দেওয়ার পর আশার আলো দেখা যায়। মেসিরা এবার অন্তর্বর্তীকালীন কর্তাদের কথা শুনে প্রিয় ক্লাবকে দেউলিয়া হওয়ার হাত থেকে বাঁচাবেন। তবে আগামী তিন বছর মেসিদের বেতন বাবদ পাঁচ কোটি ইউরো দিতেই হবে বার্সেলোনার। 

নিউজজি/সিআর

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers