খেলা

করোনা কেড়ে নিল বাংলাদেশের ক্রিকেটে প্রথম আন্তর্জাতিক সংগঠককে

স্পোর্টস রিপোর্টার জানুয়ারী ২০, ২০২১, ১৩:৪৭:২১

  • মরহুম রাইসউদ্দিন আহমেদ। ছবি-সংগৃহিত

পূর্ব পাকিস্তান আমল থেকেই ক্রিকেট সংগঠক হিসেবে পরিচিতি ছিল রাইসউদ্দিন আহমেদের। ছিলেন ইস্ট পাকিস্তান স্পোর্টস ফেডারেশনের (ইপিএসএফ) ক্রিকেট সেক্রেটারি।ঢাকার ক্লাব ক্রিকেটের দু'টি গুরুত্বপূর্ন আসর ঢাকা লিগ এবং কারদার সামার ক্রিকেট আয়োজনে রেখেছেন ভুমিকা। 

ইগলেটস ক্রিকেট ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতাও তিনি। স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশে প্রথম ক্রিকেট আসর 'জুয়েল সিঙ্গল ক্রিকেট'-আসরটির আয়োজন করেছে তার প্রতিষ্ঠিত ইগলেটস ক্লাব। 

১৯৭৬ থেকে ১৯৮১-এই ৬ বছর ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের ( বর্তমানে বিসিবি) সাধারন সম্পাদক। তার ক্রিকেট কুটনীতির করাণেই প্রথম বিদেশি ক্রিকেট দল হিসেবে ১৯৭৬ এর ডিসেম্বর-১৯৭৭এর জানুয়ারিতে বাংলাদেশ সফর করেছে মেরিলিবোর্ন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি)।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের গুরুত্বপূর্ন পদে দায়িত্ব পালন করেছেন বলে এমসিসি-বাংলাদেশের সেই সিরিজে আকাশপথে আভ্যন্তরীন ভ্রমন সুবিধা দিতে পেরেছে বিমান। এমসিসির সেই সফর বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য টার্নিং পয়েন্ট।

সেবার বাংলাদেশ সফরকালে এদেশের মানুষের ক্রিকেট প্রেম, ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা এবং ক্রিকেট অবকাঠামোগত সুবিধা ও ক্রিকেট সংগঠকদের সাংগঠনিক দক্ষতায় সন্তুষ্ট হয়ে এমসিসির সুপারিশে ১৯৭৭ সালের জুলাই মাসে বাংলাদেশ পায় আইসিসির সহযোগী সদস্যপদ। ১৯৭৯ সালে আইসিসি ট্রফিতে অংশগ্রহনের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে।

বাংলাদেশের ক্রিকেটে প্রথম আন্তর্জাতিক সংগঠক ১৯৯৬-১৯৯৮, এই তিন বছর বিসিবি'র সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সকে ঢাকার ক্রিকেট লিগে অন্তর্ভুক্ত করে ক্রিকেটারদের চাকুরির নিশ্চয়তা দেয়ার মতো দৃষ্টান্তও রেখেছেন এই ক্ষনজন্মা ক্রিকেট সংগঠক। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের অভিষেকে অবদান রাখা রাইসউদ্দিন আহমেদ সব সময় রাখতেন ক্রিকেটের খোঁজ খবর। ক্রিকেটের টানে ছুটে আসতেন শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে। খেলা দেখতেন প্রেস বক্সে বসে। প্রিয় সাংবাদিক বন্ধু কামরুজ্জামানের সঙ্গে দিতেন আড্ডা প্রেস বক্সে।প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে এমসিসির আজীবন সদস্যপদ প্রাপ্তির মতো বড় সম্মানও পেয়েছেন তিনি।

৪৪ বছর আগে এই জানুয়ারি মাসে (৭-৯ জানুয়ারি ১৯৭৭) এমসিসির বিপক্ষে তিনদিনের বেসরকারী টেস্ট দিয়ে শুরু হয়েছিল বাংলাদেশ দলের যাত্রা। সেই সিরিজের সংগঠক, রাইসউদ্দিন আহমেদ এমন দিনে গেলেন চলে, যেদিন ওয়ানডে সুপার লিগে অভিষেক হলো বাংলাদেশ দলের। 

বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের পথচলার এই কারিগর হেরে গেছেন করোনা ভাইরাসের কাছে। গত ২৫ ডিসেম্বর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন বিসিবির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি। মাঝে একবার করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভও হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু আবার আক্রান্ত ফুসফুসে সংক্রমণ বেড়ে যায়। যে কারণে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মৃত্যুর কাছে হার মানতেই হলো রাইস উদ্দিনকে।রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে (সাবেক অ্যাপোলো হাসপাতাল) চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার সকাল ১০টার দিকে ইন্তেকাল করেছেন এই ক্রিকেট নিবেদিতপ্রান। ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮২ বছর।

রাইসউদ্দিনের অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে তার রুহের মাগফিরাত কামনা করে মরহুমের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ফ্যান ক্লাব বেঙ্গল টাইগার্স ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক সাধারন সম্পাদকও সহ-সভাপতি রাইসউদ্দিনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers