খেলা

অশ্বিন-আসকার প্যাটেলে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত

স্পোর্টস রিপোর্টার মার্চ ৬, ২০২১, ১৭:২৬:০৪

  • অশ্বিনের প্রতিটি উইকেটে জয়ের আবহ আহমেদাবাদে।ছবি-ক্রিকইনফো

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস : ২০৫/১০ (৭৫.৫ ওভারে)

ভারত ১ম ইনিংস : ৩৬৫/১০ (১১৪.৪. ওভারে)

ইংল্যান্ড ২য় ইনিংস : ১৩৫/১০ (৫৪.৫ ওভারে)

ফল : ভারত ইনিংস ও ২৫ রানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : রিশব পন্ট (ভারত)।

ম্যান অব দ্য সিরিজ : রবিচন্দন অশ্বিন (ভারত) ।

চেন্নাইয়ে সিরিজের প্রথম টেস্ট জিতে আত্মবিশ্বাস বেড়ে যাওয়াই স্বাভাবিক। অথচ ইংল্যান্ডের হয়েছে উল্টোটা। ১-০তে এগিয়ে থাকা সিরিজ হেরে গেছে ৩-১-এ !

জুন-এ লর্ডসে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে চোখ রেখে সিরিজ শুরু করে স্বপ্ন ভঙ্গের বেদনায় কাতর এখন ইংল্যান্ড। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের টিকিট সবার আগে পেয়েছে নিউজিল্যান্ড। 

শেষ টেস্টে ইংল্যান্ডকে ইনিংস এবং ২৫ রানে হারিয়ে ৩-১ এ সিরিজ জিতে টেস্ট চ্যাম্পিয়রশিপের ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করেছে কোহলির দল শনিবার। তাদের প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড।  হার দিয়ে টেস্ট সিরিজ শুরু করলে তা অনেক বেশি তাঁতিয়ে দেয় ভারততে। সেই জ্বলন্ত আগুনে পুড়িয়েছে অস্ট্রেলিয়াকে। এবার সেই আগুনে পুড়ল ইংল্যান্ড। 

ইনিংস হার এড়ানোর জন্য টার্গেট ১৬০, এই লক্ষ্যটাও অতিক্রম করতে পারেনি ইংল্যান্ড। চেন্নাইয়ে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট থেকে অফ স্পিনার অশ্বিন পার্টনার হিসেবে পেয়েছেন বাঁ হাতি স্পিনার আসকার প্যাটেলকে। এই জুটিই সিরিজে তৈরি করেছে ব্যবধান। সিরিজের শেষ ম্যাচে ১০ উইকেট ( অশ্বিন ৫/৪৭,আসকার প্যাটেল ৫/৪৮)ভাগাভাগি করে নিয়েছেন এই স্পিন জুটি ! ৪শ' উইকেটের মাইলস্টোন পূর্ন করা সিরিজে অশ্বিনের শিকার ৪ টেস্টে ৩২টি ! সেখানে ৩ টেস্টে ২৭ উইকেটে অভিষেক রাঙিয়েছেন আসকার প্যাটেল।  

আহমেদাবাদ টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শেষ সেশনে ইংল্যান্ড বোলারদের উপর প্রতি আক্রমন করে ৮৯ রাণের লিড নিয়েছিল ভারত। সেই লিডকে ১৬০ রানে উন্নীত করেছে কোহলির দল।  দ্বিতীয় দিন শেষে ভারতের স্কোর ছিল ২৯৪/৭। সেই স্কোরকে টেনে নিয়ে গেছে ভারত ৩৬৫/১০-এ। এই লিডের নায়ক পন্ট (১০১), ওয়াশিংটন সুন্দর (৯৬)। 

এক সময়ে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের টিমমেট রিশব পন্ট হায়দারাবাদ টেস্টে সেঞ্চুরি করেছেন। তার সঙ্গে ১১৩ রানের পার্টনারশিপে অবদান রাখা ওয়াশিংটন সু্ন্দরও উদ্বুদ্ধ হয়েছিলেন সেঞ্চুরি করতে। তবে বড়ই দুর্ভাগা ওয়াশিংটন সুন্দর।

৬০ রান নিয়ে ব্যাটিংয়ে এসে থেমেছেন সেঞ্চুরির মাত্র ৪ রান আগে-৯৬ রানে নট আউট থেকে ফিরেছেন ড্রেসিং রুমে।পার্টনারের অভাবে দুর্ভাগা হতে হয়েছে তাকে।

৮ম উইকেট জুটিতে আসকার প্যাটেলের সাথে দারুণ বোঝাপড়ায় ১০৭ রানে দিয়েছেন নেতৃত্ব ওয়াশিংটন সুন্দর। এই পার্টনারের বিদায়ই তাকে করেছে ব্যাথিত। অবধারিত অভিষেক টেস্ট সেঞ্চুরি হাতছাড়া হয়েছে তার। 

১১৪তম ওভারের শেষ বলে সিঙ্গলের কলে আসকার প্যাটেল রান আউটে কাঁটা পড়লে স্ট্রাইক পাননি ওয়াশিংটন।বেন স্টোকসের পরের ওভারের প্রথম বলে ইশান্ত শর্মা এবং ৪র্থ বলে সিরাজের আউটের দৃশ্য দেখতে হয়েছে তাকে।এ বছর টেস্ট অভিষেক হয়েছে তার  ব্রিসবেনে অফ স্পিনার পরিচয়ে। তবে মেলে ধরেছেন নিজেকে ব্যাটসম্যান হিসেবে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অভিষেক টেস্ট ইনিংস তার ৬২। চেন্নাইয়ে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরির সম্ভাবনা দেখিয়ে পার্টনারের অভাবে ৮৫ নট আউটে থেমেছেন। আহমেদাবাদে থামলেন সেখানে ৯৬ নট আউটে।

তৃতীয় দিনে ভারত যোগ করেছে শেষ ৩ উইকেটে ৬৯। একটি রান আউট,অন্য ২টি পেয়েছেন স্টোকস। স্টোকসের ঝুলিতে যোগ হয়েছে এই ইনিংসে ৪ উইকেট (৪/৮৯)। 

ভারতের স্পিন সামলােতে পারেনি ইংল্যান্ড শুরু থেকেই। স্পিনে নাকাল হয়েছে তারা শেষ টেস্টেও। টি ব্রেকের আগে স্কোরশিটে ৯১ উঠতে ৬ ব্যাটসম্যান হারিয়ে ইনিংস হারের শঙ্কা তীব্র হয় জো রুটের দলের। ব্যাটিং বিপর্যয়ের মধ্যেও লরেন্স গড়েছেন প্রতিরোধ-করেছেন হাফ সেঞ্চুরি (৯৫ বলে ৬ চার এ ৫০)।

আহমেদাবাদে সিরিজের তৃতীয় টেস্ট হেরেছে ইংল্যান্ড ২ দিনে। একই ভেন্যুতে সিরিজের শেষ টেস্ট হারলো তারা পৌনে তিন দিনে। 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers