খেলা

বাবর আজমের সেঞ্চুরিতে রেকর্ড করে জিতল পাকিস্তান

শামীম চৌধুরী এপ্রিল ১৪, ২০২১, ২২:৩৩:০৬

  • টি-২০ ক্রিকেটে অভিষেক সেঞ্চুরি উদযাপন বাবর আজমের।ছবি-ইন্টারনেট

দক্ষিণ আফ্রিকা : ২০৩/৫ (২০.০ ওভারে)

পাকিস্তান : ২০৫/১ (১৮.০ ওভারে)

ফল : পাকিস্তান ৯ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : বাবর আজম (পাকিস্তান)।

৪ দিন আগে জোহানেসবাগে ১৮৯ চেজ করে জিতে রেকর্ড করেছে পাকিস্তান। তার চেয়েও বড় টার্গেট বুধবার দিয়েছে পাকিস্তানকে দক্ষিণ আফ্রিকা। ২০৪ রান তাড়া করে জিতলে করতে হবে পাকিস্তানকে রেকর্ড।টার্গেটটা দূরুহ বলেই ধরে নিয়েছিল পাকিস্তান সমর্থকরা।

তবে এই দূরুহ টার্গেট সহজে পাড়ি দিয়েছে পাকিস্তান। ১২ বল হাতে রেখে ৯ উইকেটে জিতে স্মরণীয় করে রেখেছে ম্যাচটি। এই ম্যাচ জিতে ৪ ম্যাচের টি-২০ সিরিজে ২-১এ এগিয়ে গেল পাকিস্তান।

আইসিসির ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ে কোহলিকে টপকে নাম্বার ওয়ান হওয়ার সুসংবাদ পেয়েছেন বুধবার পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। এমন সুসংবাদটি উদযাপন করতে সেঞ্চুরিয়নে করেছেন সেঞ্চুরি (১২২)। নিজের প্রথম সেঞ্চুরিকে পাকিস্তান ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বোচ্চ ইনিংসে দিয়েছেন রূপ বাবর। এর আগে টি-২০তে পাকিস্তানের ২টি সেঞ্চুরি ছিল ২০১৪ সালে মিরপুরে বাংলাদেশের বিপক্ষে আহমেদ শেহজাদের ১১১* এবং এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে লাহোরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে রিজওয়ানের ১০৪*।  টোয়েন্টি-২০ ক্যারিয়ারে বাবর আজমের প্রথম সেঞ্চুরি উদযাপনের ম্যাচে টি-২০ ক্রিকেটে ওপেনিংয়ে  পাকিস্তানের সর্বোচ্চ ১৯৭ রানের পার্টনারশিপও দেখেছে এদিন বিশ্ব ! যৌথভাবে সর্বোচ্চ স্কোরও করেছে পাকিস্তান এদিন। ২০১৮ সালে করাচীতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ইতাপূ্র্বে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ স্কোরের রেকর্ডটা ছিল প্রথম ইনিংসে ২০৫/৩।বুধবার সেখানে দ্বিতীয় ইনিংসে ২০৫/১ ! ৩১ টেস্টে৫,৮০ ওয়ানডে ম্যাচে ১৩ সেঞ্চুরির মালিক বাবর আজমের ছিল না ৪৯টি টি-২০ ম্যাচে কোন সেঞ্চুরি ! ২০১৮ সালে করাচীতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩ রানের জন্য সেঞ্চুরি না পাওয়ার কস্টটা এতোদিন রেখেছিলেন পুষে। টি-২০ ক্যারিয়ারে  মাইলস্টোন ম্যাচে ( ৫০তম) সেই আক্ষেপ ঘুঁচিয়েছেন।সামসিকে কভারে বাউন্ডারি শটে ৪৯ বলে প্রথম টি-২০ সেঞ্চুরি উদযাপনের ইনিংস অবিচ্ছিন্ন থেকেই শেষ করতে পারতেন বাবর আজম।তবে ১৪ বলে পাকিস্তানের টার্গেট যখন মাত্র ৭, তখন উইলিয়ামসের শর্ট বলকে উইকেট কিপারের মাথার উপর দিয়ে খেলতে যেয়ে উইকেট কিপারকে ক্যাচ দিয়ে থেমেছেন (৫৮ বলে ১৫ চার,৪ ছক্কায় ১২২)। বাবর আজমের দিনে ইনফর্ম রিজওয়ান অবিচ্ছিন্ন ছিলেন ৭৩ রানে।

টসে হেরে এই ম্যাচে ব্যাটিংয়ে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকার ওপেনিং পার্টনারশিপ ১০৮ রানে দিয়েছেন উত্তাপ। জানেমান মালান ৪০ বলে ৫৫ ,মার্করাম ৩১ বলে ৬৩ রান এবং দুসেন ২০ বলে হার না মানা ৩৪ রানে স্কোরটা টেনে নিয়েছেন ২০৩/৫-এ। বোলারদের বধ্যভুমিতেও নেওয়াজ (২/৩৮),ফাহিম আশরাফ (১/৩৭) এবং শাহীন শাহ আফ্রিদি (১/৩৯) সাধ্যমত চেষ্টা করেছেন। ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ে নাম্বার ওয়ান হওয়ার আনন্দটা উদযাপনের সংকল্প ছিল বাবর আজমের। অবিশ্বাস্য ইনিংসে সেই সংকল্পের কথাই জানিয়েছেন তিনি।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers