বিদেশ

বাইডেনের শপথের আগে হোয়াইট হাউস ছাড়বেন ট্রাম্প

নিউজজি ডেস্ক ১৬ জানুয়ারি , ২০২১, ১১:১৯:১২

  • ছবি : ইন্টারনেট থেকে

ঢাকা: যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শপথ নেওয়ার আগেই ওয়াশিংটনের হোয়াইট হাউস ছাড়বেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। গতকাল ফক্স নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী ২০ জানুয়ারি সকালেই ফ্লোরিডার মার-এ-লেগো রিসোর্টের উদ্দেশে রওনা হবেন ট্রাম্প। তবে, এ নিয়ে এখনো প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়নি।

গত সপ্তাহেই জো বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে অংশ না নেওয়ার কথা জানান ট্রাম্প। ১৮৬৯ সালের পর এই প্রথম কোনো বিদায়ী প্রেসিডেন্ট তার উত্তরসূরি প্রেসিডেন্টের অভিষেক অনুষ্ঠানে অংশ নিচ্ছেন না।

টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হওয়ার আগে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এক টুইটে বলেছিলেন, ‘যারা জিজ্ঞাসা করেছেন তাদের সবাইকে জানাই, আমি ২০ জানুয়ারি অভিষেক অনুষ্ঠানে যাব না।’

হোয়াইট হাউসের আইসেনহোয়ার এক্সিকিউটিভ অফিস ভবনের সামনে কর্মীদেরকে কয়েকটি বাক্স বহন করতে দেখা। ছবি: সংগৃহীত

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে আরও তিন জন প্রেসিডেন্ট উত্তরসূরির অভিষেকে অংশ নেননি। তারা হলেন— সাবেক প্রেসিডেন্ট জন অ্যাডামস, জন কুইন্সি অ্যাডামস ও অ্যান্ড্রু জনসন।

এদিকে, গত বুধবার কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভে (প্রতিনিধি পরিষদ) ২৩২-১৯৭ ভোটে ট্রাম্পকে অভিশংসনের প্রস্তাব পাস হয়েছে। ডেমোক্র্যাটদের পাশাপাশি ১০ জন রিপাবলিকানও ট্রাম্পকে সরিয়ে দেওয়ার পক্ষে ভোট দেন। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো প্রেসিডেন্ট দুই বার অভিশংসিত হলেন।

ডেমোক্রেটরা চান দ্রুতই যেন সিনেটে ট্রাম্পের অভিশংসন নিয়ে ট্রায়াল হোক। তবে, এ সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন সিনেটের রিপাবলিকান নেতা মিচ ম্যাককনেল। তিনি জানান, ১৯ জানুয়ারির আগে ট্রায়াল শুরু করা যাবে না। এর অর্থ হলো ২০ জানুয়ারি ট্রাম্প আনুষ্ঠানিকভাবে অফিস ছাড়ার পরই ট্রায়াল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

ক্ষমতায় আসার পরপরই অভিশংসনের ট্রায়াল শুরু হলে তা নতুন প্রেসিডেন্টের কংগ্রেসনাল এজেন্ডাকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে কি না, জানতে চাইলে বাইডেন বলেন, ‘আমরা কি সিনেটে অর্ধেক সময় অভিশংসন নিয়ে ও বাকি অর্ধেক সময় অন্যান্য কাজ চালিয়ে যেতে পারি না?’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি আশা করি সিনেটের নেতারা অভিশংসনের বিষয়ে তাদের সাংবিধানিক দায়িত্ব পালনের জন্য একটি উপায় খুঁজে নেবেন। পাশাপাশি জাতির অন্যান্য জরুরি বিষয়েও কাজ করবেন।’

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়া একটি ছবিতে হোয়াইট হাউসের আইসেনহোয়ার এক্সিকিউটিভ অফিস ভবনের সামনে কর্মীদেরকে কয়েকটি বাক্স বহন করতে দেখা গেছে।

নির্বাচনের কয়েক মাস আগে থেকেই ভোট জালিয়াতি ও ষড়যন্ত্রের কথা বলে আসছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। একাধিকবার তিনি শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন না বলেও জানিয়েছিলেন। ৩ নভেম্বর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেনের কাছে হারার পরেও আইনি লড়াই চালিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি। তার আইনি লড়াইয়ের প্রতিটি প্রচেষ্টাই ব্যর্থ হয়েছে।

গত সপ্তাহে কংগ্রেসে নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জয়ের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি অনুষ্ঠান শুরু হলে, ট্রাম্পের এক দল উগ্র সমর্থক ওয়াশিংটনের ক্যাপিটল ভবনে হামলা চালায়। এ ঘটনায় ক্যাপিটল পুলিশ কর্মকর্তাসহ পাঁচ জন নিহত হয়েছেন।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers