বিদেশ

তুর্কি মালবাহী জাহাজে হামলায় ১ নাবিক হত্যা, অপহৃত ১৫

নিউজজি ডেস্ক ২৪ জানুয়ারি , ২০২১, ১৮:১৮:১৪

  • ছবি: ইন্টারনেট

ঢাকা: পশ্চিম আফ্রিকার উপকূলে জলদস্যুরা একটি তুর্কি মালবাহী জাহাজে হামলা চালিয়ে ১৫ জন নাবিককে অপহরণ করেছে। এ সময় জাহাজের এক নাবিককে হত্যা করেছে তারা। রোববার (২৪ জানুয়ারি) তুরস্কের সামরিক বাহিনী উদ্ধার অভিযানের পরিকল্পনা করছে বলে জানায়।

নিহত নাবিক আজারবাইজানের নাগরিক। জাহাজটি গিনি উপকূলে পৌঁছালে জলদস্যুরা হামলা চালায়। এমভি মোজার্ত নামে তুর্কি জাহাজটি লাগোস থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার রাজধানী কেপটাউনে যাচ্ছিল। পথে নাইজেরিয়ার জলদস্যুরা জাহাজে হামলা চালায় বলে জানা যায়।

তুরস্কের মেরিটাইম ডিরেক্টরেট জানান, জাহাজের ক্রুরা প্রথমে একটি নিরাপদ জায়গায় নিজেদের তালাবদ্ধ করে রাখে। তবে জলদস্যুরা ছয় ঘন্টা চেষ্টা করে সেখানে প্রবেশ করতে সক্ষম হয়। এ সময় সংঘর্ষে এমভি মোজার্টে আরোহণকারী এক ক্রু সদস্য মারা যান। তুর্কি জাহাজটির ১৯ জনের মধ্যে ১৫ জনকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে জলদস্যুরা।

তুর্কি গণমাধ্যম নিহত বেক্তিকে চিহ্নিত করেছে। আজারবাইজানের নাগরিক ইঞ্জিনিয়ার ফরমান ইসমায়েলোভ। তুরষ্কের ওই জাহাজে একমাত্র তিনিই ছিলেন অন্য দেশের নাগরিক।

তুরষ্ক পরিচালিত আনাদোলু বার্তা সংস্থা জানান, গতকাল শনিবার ক্রুদের নিয়ে যাওয়ার পরে জলদস্যুরা তিনজন নাবিককে জাহজে রেখে অন্যদের নিয়ে চলে যায়। গিনি উপসাগরে জাহাজটি ছেড়ে যায় তারা। এটি বর্তমানে গ্যাবনের পোর্ট-জেনেটেলির দিকে যাচ্ছে।

তুর্কি রাষ্ট্রপতি রেসিপ তাইয়েপ এরদোগান জাহাজে থাকা উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ফুরকান ইয়ারেনের সঙ্গে দুবার কথা বলেন। তুরস্কের রাষ্ট্রপতি এক টুইট বার্তায় এ তথ্য জানান। এরদোগান অপহৃত ক্রুদের পুনরুদ্ধারের আদেশ জারি করেন বলেও টুইটে জানানো হয়।

নাইজেরিয়া ও গিনি উপকূলে হরহামেশাই জলদস্যুদের এ ধরনের হামলা হয়ে থাকে। জলদস্যুরা জাহাজে হামলা চালিয়ে নাবিকদের অপহরণ করে এবং মুক্তিপণের বিনিময়ে তাদের ছেড়ে দেয়।  সূত্র: আলজাজিরা।

নিউজজি/আইএইচ

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers