বিদেশ

করোনার ‘ব্রাজিল ধরন’র বিরুদ্ধে কার্যকর ফাইজারের টিকা

নিউজজি ডেস্ক ৯ মার্চ , ২০২১, ১২:৫৭:৩০

  • ছবি : ইন্টারনেট থেকে

ঢাকা: ব্রাজিলে শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাসের নতুন ধরন পি১ প্রতিরোধে ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা কার্যকর বলে মত দিয়েছে ব্রিটের গবেষক দল। সোমবার (৮ মার্চ) ব্রিটেনের চিকিৎসা সাময়িকী নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অব মেডিসিনে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। খবর বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

সম্প্রতি ব্রাজিলে করোনাভাইরাসের অতি উচ্চমাত্রার সংক্রামক ধরন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। বৈজ্ঞানিক ভাবে এর নাম পি.১ হলেও চিকিৎসক ও বিজ্ঞানীদের কাছে এটি পরিচিতি পেয়েছে ব্রাজিল ভ্যারিয়েন্ট বা ব্রাজিল ধরন নামে।

ব্রাজিলে শনাক্ত হওয়া এই নতুন ধরণ নিয়ে গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্রাজিলে নতুন ধরনের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত টিকা নেয়া ব্যক্তিদের রক্ত পরীক্ষা করা হয়েছিল। এর মাধ্যমে জানা গেছে, এই করোনা প্রতিরোধে ফাইজারের টিকা সক্ষম।

ফাইজার ও বায়োএনকেটের বিজ্ঞানী এবং ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাস মেডিকেল ব্রাঞ্জ বলছে, ব্রাজিলের নতুন ধরনের করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ফাইজারের টিকার সক্ষমতা আগের ভাইরাস প্রতিরোধের মতোই।

তবে গবেষকদলের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, তারা আরো বিস্তৃত আকারে মাঠ পর্যায়ে টিকাদানের মাধ্যমে বিষয়টি পরীক্ষা করতে চান। তবে ব্রাজিল ধরনটির বিরুদ্ধে ফাইজারের টিকা কার্যকর, সে বিষয়টি নিশ্চিত। এখন এটি প্রতিষ্ঠিত করতে হলে মাঠ পর্যায়ে ব্যাপক টিকাদানের পথে যেতে হবে আমাদের।’

গবেষকদলের মুখপাত্র আরও জানিয়েছেন, স্পাইকের গঠনগত কারনেই প্রচলিত করোনাভাইরাসের তুলনায় ব্রিটেন, সাউথ আফ্রিকা ও ব্রাজিলে শনাক্ত হওয়া ভাইরাসের ধরগুলোর সংক্রমণ ক্ষমতা উচ্চ।

এর আগে প্রকাশিত বিভিন্ন গবেষণা প্রতিবেদনে ফাইজার জানায়, যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া নতুন ধরনের করোনাভাইরাস রোধে ফাইজারের টিকা কার্যকর ছিল। যদিও দক্ষিণ আফ্রিকান ধরনের করোনাভাইরাস প্রতিরক্ষামূলক অ্যান্টিবডি কমাতে পারে। ফাইজারের বর্তমান টিকা দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন ধরনের করোনা প্রতিরোধে সক্ষম।

ব্রাজিলে দ্রুত ছড়িয়ে পড়া করোনার নতুন ধরন পি১ এর বিরুদ্ধে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি ভ্যাকসিন কার্যকর বলে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালিত একটি গবেষণার প্রাথমিক তথ্যে জানানো হয়।

অক্সফোর্ডের গবেষণায় বলা হয়েছে , ব্রাজিলের এই ধরনটির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ তৈরি করতে ভ্যাকসিনে পরিবর্তন আনার দরকার নেই। এর আগে গবেষণায় দেখা গেছে, দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া করোনার নতুন ধরনের বিরুদ্ধে অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা কম। সেখানকার ধরনটির সঙ্গে ব্রাজিলের পি১ ধরনের মিল রয়েছে। কার্যকারিতা কম থাকায় দক্ষিণ আফ্রিকা অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন প্রয়োগ স্থগিত ঘোষণা করেছে।

গবেষকরা বলছেন, করোনা ভাইরাসের সূচালো অংশগুলোই (স্পাইক) মূলত সংক্রমণ ও মৃত্যুর জন্য দায়ী। ফাইজার, মডার্না, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা প্রভৃতি টিকাগুলোর কাজ মূলত এই স্পাইক ধ্বংস করার প্রোটিন মানবদেহে তৈরি করা।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers