বিদেশ

মোদীর ভাবমূর্তি ফেরাতে ঝাঁপালো কেন্দ্র ও বিজেপি

নিউজজি ডেস্ক ১২ মে , ২০২১, ২০:৫৪:২৪

  • ছবি: ডয়েচে ভেলে।

ঢাকা: করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার পর দেশে-বিদেশে সমালোচিত হচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও তার নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকার। দেশে প্রতিদিন আক্রান্তের সংখ্যা তিন লাখের অনেক উপরে। মারা যাচ্ছেন রেকর্ড সংখ্যক মানুষ। দেশজুড়ে অক্সিজেন নিয়ে হাহাকার। হাসপাতালে বেড নেই। ভ্যাকসিন নেই। করোনার ওষুধ পাওয়া যাচ্ছে না।

তার উপর করোনার বাড়বাড়ন্ত সত্ত্বেও সরকার কুম্ভমেলা বন্ধ করেনি। ৯১ লাখ মানুষ সেখানে গিয়েছিলেন। পাঁচ রাজ্যে ভোট যথারীতি হয়েছে। সেখানে বড় বড় জনসভা রোড শো করেছেন বিজেপি নেতারা। প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় প্রচুর ভিড় হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে শেষ তিন পর্বের ভোট একসঙ্গে করার দাবি বিজেপি সমর্থন করেনি। অক্সিজেন সংকট নিয়ে দিল্লি হাইকোর্ট কেন্দ্রীয় সরকারের প্রবল সমলোচনা করেছে। তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বিদেশে ও দেশে মোদী সরকারের ব্যর্থতা নিয়ে লেখালিখি।

এই অবস্থায় মোদী সরকার ইতিবাচক প্রচারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এনডিটিভি জানাচ্ছে, গত সপ্তাহে কেন্দ্রীয় সরকারি অফিসারদের নিয়ে একটি ওয়ার্কশপ করা হয়েছিল। সেখানে কয়েকজন যুগ্ম সচিব পর্যায়ের অফিসারও ছিলেন। সেখানে অফিসারদের বলা হয়, সরকারের সমালোচনার জবাবে কী কী ভালো কাজ হয়েছে, সেই সব তথ্য তুলে ধরতে।

মোদী নিজে মন কি বাত-এ এই সব বিষয়ের উপরে জোর দেবেন। সাফল্যের কাহিনি বলবেন। সেই সঙ্গে দলকে বলা হয়েছে, বিরোধীরা সমালোচনা করলেই সঙ্গে সঙ্গে উপযুক্ত পর্যায়ে জবাব দিতে হবে। সেই মতো সোনিয়া গান্ধী সমালোচনা করার পরই তার জবাব দিয়েছেন বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডা। সেখানে সরকারের কাজের ফিরিস্তি দিয়েছেন তিনি।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরাও সমানে টুইট করে যাচ্ছেন, কোথায় অক্সিজেন ট্রেন পৌঁছল, কোথায় সরকার কী ইতিবাচক কাজ করেছেন সেই সব। এর মধ্যে বিজেপি-র মিডিয়া বিভাগের সঙ্গে যুক্ত সুদেশ বর্মার একটি নিবন্ধ জিতেন্দ্র সিং, প্রহ্লাদ জোশী, কিষেণ রেড্ডি, কিরণ রিজিজুর মতো মন্ত্রীরা ফেসবুক-টুইটারে পোস্ট করেন। এই নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছিল দ্য ডেইলি গার্ডিয়ান নামে একটি ডিজিটাল মাধ্যমে। মোদীর কাজের ভূয়সী প্রশংসা করা হয়েছিল সেখানে। এই ডিজিটাল মাধ্যমের সঙ্গে যুক্তরাজ্যের বিখ্যাত সংবাদপত্র দ্য গার্ডিয়ানের কোনো সম্পর্ক নেই। কিন্তু মানুষের ধারণা হয়, বিদেশি সংবাদপত্রে মোদীর ভূয়সী প্রশংসা হয়েছে। অভিযোগ ওঠে, এটাও বিজেপি-র কৌশলের অঙ্গ।

এনডিটিভি জানাচ্ছে, আরএসএস-ও পজিটিভিটি আনলিমিটেড নামে একটা অনুষ্ঠান করতে চলেছে। সেখানে ধর্মীয় গুরু, শিল্পপতি সহ বিভিন্ন বিশেষজ্ঞ ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে বলবেন। সরসঙ্ঘচালক মোহন ভাগবত নিজেও বলবেন।

সূত্র: ডয়েচে ভেল।

নিউজজি/ এস দত্ত

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers