বিদেশ

নতুন পাসপোর্টে জেরুজালেমকে ‘ফিলিস্তিনি অঞ্চল’ লিখেছে যুক্তরাজ্য

নিউজজি ডেস্ক ১৭ জুন , ২০২১, ১৪:৩১:৪৯

  • ছবি: ইন্টারনেট

ঢাকা: যুক্তরাজ্য-ইসরায়েলের দ্বিনাগরিকত্ব সম্পন্ন এক নারীর নতুন পাসপোর্টে জন্মস্থান হিসেবে জেরুজালেমের জায়গায় ‘দখলকৃত ফিলিস্তিনি অঞ্চল’ লিখেছে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ।

এ নিয়ে ব্যাপক উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা তৈরি হয়েছে ইসরায়েলিদের মধ্যে। বুধবার (১৬ জুন) ইসরায়েলি দৈনিক হারেজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ইসরায়েলের রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যম কানকে দেয়ার এক সাক্ষাৎকারে আয়েলেৎ বালাবান নামে এক ইহুদি নারী জানান, তার নতুন পাসপোর্টে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ জেরুজালেমকে ‘দখলকৃত ফিলিস্তিনি অঞ্চল’ উল্লেখ করেছে, যা দেখে তিনি রীতিমতো হতবাক হয়ে যান।

আয়েলেৎ বলেন, আমি ভেবেছিলাম তারা হয়তো দ্বিধায় পড়েছে। কারণ আমি গাজা থেকে উদ্বাস্তু ইহুদিদের একটি মোশাবে (সম্প্রদায়) থাকি, যদিও সেটি আমার জন্মস্থান নয়।

এ নারী জানান, দুই বছর আগে তার ভাইয়ের পাসপোর্ট ইস্যু করা হয়েছিল। সেখানে ঠিকই জন্মস্থান হিসেবে জেরুজালেম লেখা হয়েছে।

অর্থাৎ, ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ তাদের ইসরায়েল-নীতিতে কোনো পরিবর্তন আনলে সেটি অতিসম্প্রতিই আনা হয়েছে।

আয়েলেৎ জানান, তিনি এ বিষয়ে জানতে লন্ডনে ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন। তবে এখন পর্যন্ত কোনো জবাব পাননি।

জেরুজালেমে ব্রিটিশ কনস্যুলেটের ওয়েবসাইটে বলা রয়েছে, জেরুজালেমের ওপর সার্বভৌমত্বের স্বীকৃতির বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত স্থগিত রেখেছে যুক্তরাজ্য। দেশটি পশ্চিম জেরুজালেমের ওপর ইসরায়েলের একচ্ছত্র কর্তৃত্বের স্বীকৃতি দিলেও পূর্ব জেরুজালেমকে ইসরায়েলিদের দখলকৃত হিসেবে বিবেচনা করে।

এ বিষয়ে মন্তব্যের জন্য ইসরায়েলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল কান কর্তৃপক্ষ। তারা জানিয়েছে, পাসপোর্টের ওই ঘটনায় তদন্ত করা হচ্ছে। আর ইসরায়েলে ব্রিটিশ দূতাবাসে যোগাযোগ করলে তারা এখন পর্যন্ত কোনো সাড়া দেয়নি।

নিউজজি/এস দত্ত

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers